1. iliycharman7951@gmail.com : admin :
  2. iliaych.arman@gmail.com : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:২৯ অপরাহ্ন
Title :
চকরিয়ায় পিএফজির ফলো-আপ মিটিং অনুষ্ঠিত চকরিয়ায় আপিলের শর্তে সাহারবিলের বর্তমান মেম্বারসহ সাজাপ্রাপ্ত ৫ আসামীর মুক্তি  চকরিয়ার সন্তান” আবুল হাসনাত মোহাম্মদ সায়েম”ব্রিগেডিয়া জেনারেল পদবীতে পদোন্নতি পেলেন   দুঃশাসন থেকে মুক্তি পেতে কোনাখালীবাসীকে নৌকায় ভোট দিতে আহবান-উপজেলা আওয়ামী নেতৃবৃন্দের কোনাখালী ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি পদ থেকে দিদারকে অব্যাহতি;ভারপ্রাপ্ত সভাপতি টিপু চকরিয়ায় সুজনের মাধ্যমে জনগণের মুখোমুখি কোনাখালীর চেয়ারম্যান প্রার্থীগণ চকরিয়ায় পূত্রের লাঠির আঘাতে পিতা খুন চকরিয়া মোবাইল ব্যবসায়ী সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন;সভাপতি-জালাল,সাঃসম্পাদক-মিজান নির্বাচিত কোনাখালীতে বিদ্রোহী প্রার্থীর হামলায় ৩ নৌকা সমর্থক আহত পুলেরছড়া দারুল ইহ্সান মাদ্রাসায় দাখিল পরীক্ষার্থীদের বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

চকরিয়ায় বনবিভাগের নামে চাঁদা আদায় পান চাষীদের নিকট 

নির্বাহী সম্পাদক কতৃক প্রকাশিত
  • Update Time : রবিবার, ৪ জুলাই, ২০২১
  • ১৬৩ Time View

চকরিয়া(কক্সবাজার)প্রতিনিধি ঃ

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার বরইতলী ইউনিয়নের উত্তর মছনিয়া কাটায় পান চাষিদের কাছ থেকে বন বিভাগের নামে চাঁদা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ বনবিভাগের বারবাকিয়া রেঞ্জের অধীনে পহরচান্দা বন বিটের আওতায় বরইতলী ও হারবাং ইউনিয়নের পশ্চিম দিকের বনভূমিতে রয়েছে প্রায় ৪০ টির মতো পানের বরজ রয়েছে। এসব পান বরজের মালিকগন স্থানীয় চাষা ও গরীব শ্রেণির কৃষক। সারাবছর পান উত্তোলন করে কোন রকম সংসার চলে তাদের।
সরেজমিনে জানা যায়, বছরে দুইটি পানের সিজন। প্রতি সিজনে স্থানীয় আব্দুল্লার পুত্র মহি উদ্দিন ও পহরচান্দা বন বিটের হেডম্যান মোক্তার মাঝির যোগসাজশে প্রত্যেকটি পানের বরজ থেকে বিট বন কর্মকর্তার নামে একহাজার, তদের জন্য দেড় থেকে তিন হাজার টাকা ক্ষেত্রবিশেষে পাঁচ থেকে সাত হাজার টাকা পর্যন্ত হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ করেন পান চাষিরা।
বরইতলী ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড উত্তর মছনিয়া কাটার করিম উদ্দিন নামক এক কৃষক প্রতিনিধি কে বলেন, মছনিয়া কাটার মহিউদ্দিন ও মোক্তার মাঝি বছরে দুইবার তাদের কাছ থেকে ৩ হাজার থেকে ৫ হাজার টাকা হাতিয়ে নেন।
হারবাং ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের পান চাষি আব্দুল কাদের বলেন, ফরেস্ট অফিসার সহ এসে আমাদের কাছ থেকে টাকা আদায় করে। ওনাদের চাহিদা মতো টাকা দিতে না পারলে আমাদের পানের বরজ ভেঙে দেওয়ার হুমকি দেন। আবার অনেকের পানের বরজ ভেঙে দেওয়ারও অভিযোগ তুলে এই ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে তাদের থেকে টাকা আদায়ের প্রতিবাদ জানান।
সন্ত্রাসী ও চান্দাবাজদের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য বন বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভুক্তভোগী ও এলাকাবাসী।
পহরচান্দা বিট বন কর্মকর্তা শামসুল হক বলেন, বন বিভাগের জমিতে পানের বরজ গুলো, তাই তাদের উচ্ছেদ করা আমাদের সরকারি দায়িত্ব। হেডম্যানের মাধ্যমে টাকা আদায়ের কথা তিনি অস্বীকার করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বার বাকিয়া রেঞ্জের রেঞ্জ কর্মকর্তা আবদুল গফুর মোল্লা বলেন, আমাদের লোক বলের অভাবে সরকারি বনভূমি সঠিক ভাবে রক্ষা কঠিন হয়ে যাচ্ছে। পানের বরজ থেকে টাকা আদায়ের বিষয়ে তিনি অবগত নন জানিয়ে বলেন, বন বিভাগের নামে অনৈতিক ভাবে কেউ টাকা আদায় করলে তাদের ছাড় দেবেন না বলে নিশ্চিত করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 LatestNews
Theme Customized BY Infobytesbd.com