1. iliycharman7951@gmail.com : admin :
  2. iliaych.arman@gmail.com : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
January 26, 2022, 2:56 pm
শিরোনাম:
চকরিয়া হাছিমারকাটা অলিম্পিক ফুটবল টুর্ণামেন্টে চ্যাম্পিয়ন”আবির স্পোর্টিং ক্লাব” ডুলাহাজারায় ইউপি মেম্বার রমজান আলীর মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে এলাকাবাসির মানববন্ধন চকরিয়া বিএমচরে দিনদুপুরে বিকাশ পয়েন্টে হামলা,লুটপাট,আহত-২ চকরিয়া মাইজঘোনা ইসলামি আর্দশ ছাত্র ও যুব সংগঠনের উদ্যোগে হিফযুল কোরআন ও তাফসীর মাহফিল ১৭৭ পদে কর্মসংস্থান ব্যাংক এ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি-২০২২ ডুলাহাজারা ইউপি নির্বাচন বাতিল করে পুনঃনির্বাচনের দাবিতে মেম্বার প্রার্থীদের যৌথ সংবাদ সম্মেলন চকরিয়ায় ১০ ইউনিয়নের ১২০ মেম্বারের শপথ গ্রহণ চকরিয়া ডুলাহাজারা ইউপি নির্বাচনে ৭নং ওয়ার্ডে অনিয়ম ও ডিজিটাল কারচুপির অভিযোগ মেম্বার পদপ্রার্থী গিয়াস গাজীর কক্সবাজারে বেড়াতে এসে গণধর্ষণের শিকার এক গৃহবধূ! ২ ধর্ষক শনাক্ত বাংলাদেশের যে অঞ্চলে গরু,মহিষের জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক

বাংলাদেশের যে অঞ্চলে গরু,মহিষের জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক

নির্বাহী সম্পাদক কতৃক প্রকাশিত
  • Update Time : Monday, December 20, 2021,
  • 117 Time View

এনডি ডেক্স ঃ

বাংলাদেশের রাজশাহী জেলার সীমান্তবর্তী চরাঞ্চলে কোন বাসিন্দা যদি গরু, মহিষ বা বাছুর পালতে চান তাহলে তাকে সেইসব পশুর নিবন্ধন করতে হয়।এমনকি এসব পশু বাচ্চা জন্ম দিলে কিংবা পশু বিক্রি করলেও তথ্য হালনাগাদ করতে হয়। এবং এই নিয়ম বাধ্যতামূলক।
বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি এবং গোদাগাড়ী উপজেলার ভারত সীমান্তবর্তী আষাড়িয়াদহ ইউনিয়ন পরিষদ এই তথ্য নিশ্চিত করেছে।
বিজিবি ক্যাম্প এবং স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও মেম্বারের কাছে গিয়ে পশুর মালিকদের নিবন্ধন ও হালনাগাদের এই কাজটি করতে হয়।

দুর্ভোগে সাধারণ মানুষ ঃ

নিবন্ধনের এই কাজটি সম্পন্ন করতে পশুর মালিকদের একাধিক জায়গায় যেতে হয়। অনেক নথিপত্রের কাজও রয়েছে। এসব কারণে গ্রামের স্বল্পশিক্ষিত মানুষের জন্য বিশেষ করে যারা দূরবর্তী অঞ্চলে থাকেন তাদের ব্যাপক দুভোর্গ পোহাতে হয়।
দুই মাস আগেও নিবন্ধন করতে পশু মালিকদের মাইলের পর মাইল হেঁটে গরু-মহিষ চড়িয়ে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়ে এরপর বিজিবি ক্যাম্প পর্যন্ত টেনে নিয়ে যেতে হতো।
এ নিয়ে গ্রামের এক বাসিন্দা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, “আমার ছ’টা গরু। হাট থেকে কয়টা কিনেছি। আমার ভাই কয়টা দিয়ে গেল। আবার একমাস আগে একটা গাভী বাচ্চা দিয়েছে। এজন্য চারবার আসা যাওয়া করছি। একবার এই অফিসে ওই অফিসে। আমাদের তো কাজ আছে। আমার দেশে আমার গরু রাখতে এতো ঝামেলা কেন বুঝিনি।”
প্রতিটি বাড়িতে কমপক্ষে দুটি করে আবার কিছু কিছু বাড়িতে ৬০ থেকে ৭০টি গরুর পালও রয়েছে।

কেন এই নিবন্ধন ঃ

মূলত সীমান্ত দিয়ে গরু-মহিষের অবৈধ চোরাচালান ঠেকাতে বিশেষ করে ভারত থেকে বাংলাদেশে গরু আনা প্রতিরোধে এমন পদক্ষেপ বলে জানিয়েছেন ইউনিয়নের সাহেবনগর বিওবি ক্যাম্পের সহকারী ক্যাম্প কমান্ডার নায়েব সুবেদার মোহাম্মদ আলী আব্বাস।
রাজশাহী জেলার সাথে ভারতের ৭৬ কিলোমিটার সীমান্তের মধ্যে কাঁটাতার দেয়া দেয়া আছে ১১ কিলোমিটার জুড়ে। বাকি অরক্ষিত সীমানা দিয়ে যেন গরু চোরাচালান না হতে পারে, সেজন্য এই বাড়তি সতর্কতা বলে তিনি জানান।
বিবিসি বাংলাকে মি.আব্বাস বলেন, ভারত থেকে বাংলাদেশে এখন গরু, মহিষ আসা নিষেধ। আগে বৈধ করিডোর দিয়েই গরু আসতো। কিন্তু এরমধ্যেও চোরাকারবারি হয়েছে। আবার ভারত সরকারও এ নিয়ে কড়াকড়ি করেছে।
“আমরাও কড়া অবস্থানে গিয়েছি যেন সীমান্ত এলাকায় কোন গরু মহিষ চোরাচালান না হয়। সীমান্ত এলাকায় গরু বাছুরের হিসাব থাকায় এখন কেউ তা করতে পারে না।”
তিনি জানান, তার এই চর এলাকার সব মানুষই গরু, মহিষ লালন পালন করে জীবিকা নির্বাহ করে।
প্রায় এক দশকের বেশি সময় ধরে তার এলাকায় এসব পশু নিবন্ধন হয়ে আসছে। গত তিন বছর ধরে এই নিয়ম বেশ জোরদার করা হয়েছে।
পুরো ইউনিয়নে কী পরিমাণ গবাদিপশু আছে, কোন বাড়িতে কয়টা পশু আছে, সেটির পুঙ্খানুপুঙ্খ হিসাব বিজিবি ক্যাম্পে থাকে।
ক্যাম্প কর্মকর্তারা নিয়মিত গরু মহিষের হিসাব নিয়ে থাকেন। তবে এ নিয়মের আওতায় ছাগল, ভেড়া বা খাসীর নিবন্ধন করতে হয় না।
ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সানাউল্লাহ জানান, তার ইউনিয়নের অন্তত সাড়ে চার হাজার বসতঘর রয়েছে।
প্রতিটি বাড়িতে কমপক্ষে দুটি করে আবার কিছু কিছু বাড়িতে ৬০ থেকে ৭০টি গরুর পালও রয়েছে।
সব মিলিয়ে এই ইউনিয়নে অন্তত ৫০ হাজারের মতো নিবন্ধিত গরু আছে বলে তিনি জানান।

বিবিসি নিউজ বাংলা  

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 LatestNews
Theme Customized BY Infobytesbd.com