1. iliycharman7951@gmail.com : admin :
  2. iliaych.arman@gmail.com : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
May 16, 2022, 9:28 pm
শিরোনাম:
ফাঁসিয়াখালীতে যারা জয় বাংলা শ্লোগানকে ঘৃণা করতো তারাই আজ আওয়ামী লীগের কাউন্সিলর-চেয়ারম্যান হেলাল উদ্দিন হেলালী সাহারবিল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নবী হোছাইনের বিরুদ্ধে প্রচারিত সংবাদের প্রতিবাদ প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছেন ডুলাহাজারার ছাত্রনেতা তানভীর বিএমচর ইউপি চেয়ারম্যান ও ছাত্রলীগের সা.সম্পাদকের বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মামলা প্রত্যাহারের দাবি চকরিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকদের সম্মানে ইফতার মাহফিল সম্পন্ন চকরিয়া কৃষ্ণাপুরে ফসলী জমি অবৈধ দখল নিতে হামলা ও ভাংচুর লক্ষ্যারচরে জসীম রানার ব্যক্তিগত উদ্যোগে অসহায়দের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ চকরিয়া কাজী মার্কেট সিংঙ্গার শো-রুমে Scan & Win গিফট অফার বিজয়ীদের পুরুষ্কার বিতরণ শুরু চকরিয়ায় মফজল চেয়ারম্যান,কামাল চেয়ারম্যান ও জামাল হোছাইন স্মরণে সভা,দোয়া,ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত ফারিয়া চকরিয়া’র “ইফতার” মাহফিল সম্পন্ন

চকরিয়ার ছেলে মাহমুদুল হাসান হাসপাতালেই বিয়ে করলো ক্যান্সারাক্রান্ত প্রেমিকা ফাহমিদাকে

নির্বাহী সম্পাদক কতৃক প্রকাশিত
  • Update Time : Monday, March 14, 2022,
  • 949 Time View

বিশেষ প্রতিনিধি ঃ

প্রেমের মরা জলে ডুবে না,প্রেম-ভালোবাসার বহু শ্বাশত কাহিনি ইতিহাসে অমর হয়ে আছে। তেমনি হাসপাতালের বেডে গত ৯ মার্চ ২০২২ তারিখ রাতে আরেক ভালোবাসার অমর উপাখ্যান রচনা করলো হাসান ও ফাহমিদা।

চকরিয়ার ছেলে মাহমুদুল হাসান নর্থ সাউথ থেকে এমবিএ আর চট্টগ্রাম নগরীর দক্ষিণ বাকলিয়াতে জন্ম নেয়া ফাহমিদা কামাল ইইউবি থেকে বিবিএ ও এমবিএ শেষ করেছে।

শিক্ষাজীবনে তাদের দুজনের পরিচয়। লাবণ্যময়ী স্মার্ট সুন্দরী তরুণী ফাহমিদাকে ভালো লাগতে শুরু করে হাসানের। এর পর আস্তে আস্তে দুজন প্রেমে জড়িয়ে পড়ে। ভালোবাসার মায়াবী বন্ধনে হয়ে উঠে দুজন দুজনার। হাতে হাত ধরে স্বপ্নেবিভোর রঙিন ভুবনে উড়তে থাকে অচেনা হাজারো পথে। সুখ আনন্দ সবই যেন ভরপুর। বিয়ে সংসার কত না মধুর সুখ চোখের কোনায়।

কিন্তু একি! এমন স্বপ্ন সুখের রঙিন উঠোনে ঘনকালো অন্ধকার। সফেদ আকাশ মেঘে ঢাকা বৈরী ঝড়ো হাওয়া সব তছনছ করে দিতে উদ্যত। ফাহমিদার স্বপ্নরাঙা মায়াবী শরীরে বাসা বাঁধে মরণঘাতী ক্যান্সার। ধরা পরার পর সাথে সাথে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা এভারকেয়ার, পরবর্তীতে ভারতের টাটা মেমোরিয়াল হসপিটালে নেয়া হয়। সেখানে দীর্ঘ একবছর চিকিৎসার পর ডাক্তাররা সাফ জানিয়ে দেয়, ফাহমিদার চিকিৎসা আর সম্ভব নয়, ইঙ্গিত দেয়, বেঁচে থাকার সম্ভাবনা নেই।

পাথরচাপা কষ্ট নিয়ে পরিবারের লোকজন ২০ বছর বয়সী ফাহমিদাকে চট্টগ্রামে নিয়ে এসে মেডিকেল সেন্টারে ভর্তি করায়। সেখানে চলতে থাকে চিকিৎসা। কিন্তু ক্রমাগত ফাহমিদার শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে।

প্রেয়সী ফাহমিদার অসহ্য কষ্ট ও বুকভাঙা যন্ত্রণা প্রেমিক হাসানের সহ্য হয় না। ফাহমিদার কষ্ট হাসান ভাগ করে নিতে চায়। চোখের জল মুছে দিতে চায়, কপালে হাত রেখে বলতে চায়, আমি আগের মতো এখনো তোমার পাশে আছি। হাতে হাত রেখে বলতে চায়, আমি তোমাকে বড্ড ভালোবাসি। তুমিই আমার জীবন তুমিই আমার সব। মাথায় হাত বুলিয়ে ঘুম পাড়াতে চায়। বুকে জড়িয়ে নিয়ে কষ্টগুলো নিজের করে নিতে চায়। কিন্তু তা কী করে সম্ভব! হাসান ফাহমিদার প্রেমিক হলেও সমাজের চোখে পরপুরুষ। মৃত্যুযন্ত্রণায় ফাহমিদা নিঃশেষ হতে চলেছে।

এবার হাসান কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলে। ফাহমিদাকে যদি মরতে হয়, তাহলে তার বুকে মাথা রেখেই মরতে হবে। নিজের পরিবারকে নিয়ে এসে প্রস্তাব দিলো সে, ফাহমিদাকে বিয়ে করতে চাই। মৃত্যু পথযাত্রী ফাহমিদাকে হাসানের বিয়ে করার প্রস্তাবে সবাই হতবিহ্বল। হাসানকে বুঝানোর সব ধরনের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু হাসান তার সিদ্ধান্তে অটল।

অবশেষে উভয় পরিবার সম্মত হয়। বিষয়টি জানানো হয় জীবনমৃত্যুর সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে থাকা ফাহমিদাকে। অবিশ্বাস্য প্রস্তাব শুনে অপলক তাকিয়ে থাকে সে প্রিয় হাসানের দিকে। ফাহমিদার মুখে ফুটে উঠে নির্মল স্বর্গীয় হাসি। আনন্দ অশ্রুতে দুজনের পৃথিবী দোল খেতে থাকে। বাতাসে নাচতে থাকে রঙিন প্রজাপতি।

অবশেষে বিয়ের প্রস্তুতি নেয়া হয়। গত ৯ মার্চ ২০২২ তারিখ বাদ-এশা মেডিকেল সেন্টারে তাদের বিয়ের আয়োজন হয়। কনে ফাহমিদাকে পরানো হয় লাল বেনারসি শাড়ি, গলায় সোনার হার। বর হাসান পায়জামা-পাঞ্জাবি পরে। আক্দ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। দুজন মিলে কেক কাটে, মালা বদল হয়। খেজুর মিষ্টি খাওয়ানো হয়।

ক্ষণিকের জন্য মরণঘাতী ক্যান্সারকে জয় করে ফাহমিদা হয়ে উঠে অন্য এক পৃথিবীর বাসিন্দা। সমস্ত স্বর্গীয় সুখ তাকে ঘিরে রাখে। হারিয়ে যাওয়া সোনালি দিনগুলো আবার যেন ফিরে পায়। আনন্দে আত্মহারা ফাহমিদার আরো বাঁচতে ইচ্ছে করে। ইচ্ছে করে হাসানের বুকে মাথা রেখে হাজার বছর বাঁচতে।

হাসান আর ফাহমিদার এই অমর প্রেমকাব্যে প্রেমেরই জয় হলো। জীবন ক্ষনিকের, জীবনের কাছে প্রেম অবিনশ্বর।

উল্লেখ যে, এই অতুলনীয় দৃষ্টান্ত স্হাপন কারী মাহমুদুল হাসান চকরিয়া ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আজিজুল হকের পুত্র।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 LatestNews
Theme Customized BY Infobytesbd.com